Sign up with your email address to be the first to know about new products, VIP offers, blog features & more.

বন্ধুত্ব দীর্ঘজীবি হোক

পার্কের মাঠের পাহাড়াদার এর ঘড়ি টা বড্ড বেয়াড়া। গরম কালের সময় সাড়ে তিনটে থেকে সাড়ে পাঁচটা। রক্তে আমার এখন ভরা জোয়ার। সারাদিন বন্ধ ঘরের ঘেরাটোপ পেরিয়ে একটু প্রানপনে নিশ্বাস নেওয়া , সমবয়সী দের সান্নিধ্য , আলাপচারিতা। থুড়ি বুলি না ফুটলেও ইশারায় কাজ সারা। কিন্তু এর মাঝেও বাঁধ সাধা। পাঁচটা কুড়ি পড়লো প্রথম ঘন্টি।

– আমি তাজা প্রান। এক ছুটটে দোলনা, সেখান থেকে স্লিপ , এরই মাঝে পার্কে প্যারাম্বুলেটর এ নবাগত বন্ধুর সাক্ষাত ও নিজেকে কিছুটা বড় মনে করা। আপ্রাণ চেষ্টা এই কম সময়ের মধ্যে যতটা পারা যায় কুড়িয়ে নেওয়া আনন্দঘন মুহূর্ত।
– যাহ , পাঁচ মিনিট অতিক্রান্ত , পড়লো ঘন্টা
– আজকের মত বিদায় , ডালিয়া , চন্দ্রমল্লিকা , দোলনা একে একে সবাই একা হয়ে যাবে।
– চোখ ছল চল। শিশু মন- কিন্তু “ও যে মানে না মানা ”
মাঝে মাঝে নিজেকে বেশ অসহায় মনে হয় , যে সুযোগ আমরা পেয়েছি বন্ধুদের সাথে হাথ ধরে খোলা মাঠে ছুটোছুটি সেটা পরবর্তী প্রজন্ম অনেকটাই বঞ্চিত। সহর্তলিতেও যেন সেই কংক্রিট জঙ্গল।
– তবে সরস্বতী পুজো আর ভালেন্তাইনস দের প্রাক্কালে কলেজ পড়ুয়াদের প্রান্ চঞ্চলতায় বুঝলাম এখনো তারা বন্ধুত্বের স্বাদ পেতে চায়।

– দীর্ঘজীবি হোক বন্ধুত্ব। দীর্ঘজীবি হোক তরুণ প্রান। 

share

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of